/ / এমপিও নীতিমালা ২০২১: স্কুল-কলেজ এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত)

এমপিও নীতিমালা ২০২১: স্কুল-কলেজ এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত)

স্কুল কলেজ এমপিও নীতিমালা ২০২১

স্কুল-কলেজ সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ২০২১ প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রনালয়। এতে ৫০% কলেজ শিক্ষক সহকারী অধ্যাপক পদ পাচ্ছেন।

স্কুল-কলেজ এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ২০২১ (২৮ মার্চ, সংশোধিত) প্রকাশ

বহুল প্রতিক্ষিত স্কুল-কলেজের সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ২০২১ প্রকাশ করা হয়েছে। দীর্ঘ দিনের শিক্ষক-কর্মচারীদের দাবীর মুখে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এই নীতিমালা সংশোধনে করে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় এর মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এর দাপ্তরিক ওয়েবসাইটের নোটিশবোর্ডে, নতুন সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ২৯/০৩/২০২১ খ্রিষ্টাব্দ তারিখে প্রকাশিত হয়।

এর আগে মাদ্রসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের এমপিও নীতিমালার সংশোধন করে গত বছর প্রকাশ করা হয়।

আরো পড়ুন:

এনটিআরসিএ ৩য় গণবিজ্ঞপ্তি ২০২১: স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষক নিয়োগ

মাদ্রাসা ও কারিগরি এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত) ২০২০ প্রকাশ

কলেজের সকল প্রভাষক ৮ ও ১৬ বছর পূর্তিতে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন

২০২১ খ্রিষ্টাব্দে ২৯ মার্চ প্রকাশিত নতুন সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোয়  শিক্ষকদের জন্য কিছু সুখবর আছে।

উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ ও ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক চাকুরীর ৮বছর পূর্তিতে, কলেজের মোট প্রভাষকের ৫০% জৈষ্ঠ প্রভাষক/সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন।

উচ্চ মাধ্যমিক কলেজের ক্ষেত্রে জৈষ্ঠ প্রভাষক, আর ডিগ্রি কলেজের ক্ষেত্র সহকারী অধ্যাপক নামে একই স্কেলে দুটি পদ থাকবে।

তবে এক্ষেত্রে ১০০ নম্বরের মূল্যায়ন পদ্ধতির মাধ্যমে যোগ্য শিক্ষকদের পদোন্নতি দেওয়া হবে।

আগে যেখানে খুব অল্প সংখ্যক প্রভাষক সহকারী অধ্যাপক পদ পেতেন। নতুন নীতিমালায় সহকারী অধ্যাপক নিয়ে কলেজ শিক্ষকদের দীর্ঘ দিনের বঞ্চনার অবসান হলো।

এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কলেজ শিক্ষকরা দীর্ঘদিন থেকে সহকারী অধ্যাপক স্কেলের ক্ষেত্রে, অনুপাত প্রথার বিরোধিতা করে আসছিল।

তবে এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, আগে থেকে যারা উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে সহকারী অধ্যাপক পদে কর্মরত আছেন, তারা উক্ত পদে বহাল থাকবে। পরবর্তীতে আর উচ্চ মাধ্যমিক কলেজে সহকারী অধ্যাপক পদ থাকছে না।

উচ্চ মাধ্যমিক কলেজের নতুন পদোন্নতি প্রাপ্ত প্রভাষক জৈষ্ঠ প্রভাষক পদে পদোন্নতি পাবে। তবে জৈষ্ঠ প্রভাষকও সহকারী অধ্যাপকের সাথে একই গ্রেডে (গ্রেড-০৬) বেতন-ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

তবে ৮ বছর পূর্তিতে মোট প্রভাষকের অর্ধেকের বাহিরে এখনও যারা থাকবেন, তাদের জন্য ১০ বছর পূর্তিতে ৮ম গ্রেড প্রাপ্ত হবেন। এরপর আরো ৬ বছর চাকুরীর পর তারা সরাসরি সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন।

স্কুলের সহকারী শিক্ষক থেকে সিনিয়র শিক্ষক হিসাবে পদোন্নতি পাবেন যেভাবে

স্কুলের সহকারী শিক্ষকগণ চাকুরীর জীবনে ১০ গ্রেড পাওয়ার পর ১০ বছর পূর্তিতে সিনিয়র শিক্ষক হিসাবে ৯ম গ্রেডে উন্নীত হবেন।

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে, শিক্ষায় ডিগ্রি (বিএড/সমমান) না করলে সিনিয়র শিক্ষক হতে পারবেন না।

এরপর আরো ৬ বছর পর অর্থাৎ ১৬ বছরের চাকুরী জীবনে তারা পরবর্তী উচ্চতর গ্রেড (৮ গ্রেড) প্রাপ্ত হবেন।

এছাড়া আগের বিএড স্কেলকে উচ্চতর গ্রেড/স্কেল হিসাবে বিবেচনা করার নিয়মকে বাতিল করা হয়েছে।

এতে করে শিক্ষকদের বিএড স্কেল ছাড়াও আরো দুটি উচ্চতর স্কেল পাওয়ার পথ সুগম হলো।

আরো দেখুন: এমপিও মার্চ ২০২১: বেসরকারি শিক্ষকদের বেতন-ভাতা-MPO March 2021

প্রভাষক পদ থেকে জৈষ্ঠ প্রভাষক/সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতির মূল্যায়ন

এমপিও নীতিমালায় নতুন করে পদোন্নতির মূল্যায়ন পদ্ধতি প্রণয়ন করা হয়েছে। দীর্ঘদিন থেকে শিক্ষকরা পরীক্ষার মাধ্যমে পদোন্নতির দাবী করে আসছিল।

তবে এখানে সরাসরি পরীক্ষা না হলেও, শিক্ষা ও চাকুরী জীবনের কিছু বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে একটি প্রতিযোগিতা মুলক মূল্যায়ন পদ্ধতি কথা বলা হয়েছে।

স্কুল-কলেজ এমপিও নীতিমালা ২০২১ (পদোন্নতি মূল্যায়ন পদ্ধতি)
[জৈষ্ঠ অধ্যাপক/সহকারী অধ্যাপক পদে মূল্যায়ন পদ্ধতির সূচক, এমপিও নীতিমালা ২০২১ এর ১১.৬ অনুচ্ছেদে বর্ণিত]
পদোন্নতির ক্ষেত্রে উপরের মূল্যায়ন পদ্ধতির কিছু বিষয় নিয়ে কিছুটা সমস্যা হতে পারে বলে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন।

যেমন- ‘প্রতিষ্ঠানে যোগদানের পর থেকে অনুকরনীয়/সৃজনশীল দৃষ্টান্ত’ বলতে এখানে কী বোঝানো হবে তা স্পষ্ট করে বলা হয়নি।

এছাড়াও ক্লাশে মোট উপস্থিতি সহ কিছু বিষয়ে সুনির্দিষ্ট ব্যাখ্যার প্রয়োজন আছে বলে অনেকে মনে করছেন।

গ্রন্থাগারিক পদটিতে প্রভাষকের মর্যদা প্রদান

এতদিনে কলেজের গ্রন্থাগারিক পদটি প্রভাষক (গ্রন্থাগার) পদের মর্যদা প্রদান করা হয়েছে।

আর সহকারী গ্রন্থাগারিক পদটিকে সহকারি শিক্ষকের (গ্রন্থাগার ও তথ্যবিজ্ঞান) সমান মর্যদা দেওয়া হয়েছে।

তবে বেতন-ভাতা অন্যান্য সুযোগ সুবিধা, আগের মত থাকবে বলে সংশোধিত এমপিও নীতিমালায় উল্লেখ করা হয়েছে।

শিক্ষক-কর্মচারী অন্য পদে চাকুরী করলে বা লাভজনক পদের থাকলে এমপিও বাতিল

স্কুল-কলেজের এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী অন্য কোন পদে চাকুরী বা লাভজনক পদে থাকতে পারবেন না।

সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বাইরে কোন শিক্ষক-কর্মচারী চাকুরী করলে, বা অন্য কোন লাভজনক পদে থাকলে তার এমপিও বাতিল করা হবে বলে নীতিমালায় বলা হয়েছে।

এর আগের নীতিমালায় এই বিষয়ে স্পষ্ট কোন নির্দেশনা দেওয়া ছিলো না। তবে নতুন নীতিমালায় বর্ণিত ‘লাভজনক পদ’ বলতে কী বোঝাবে তা স্পষ্ট করে বলা হয়নি।

স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের শতভাগ ঈদ বোনাস  তথ্যে অস্পষ্টতা

এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা শতভাগ ঈদ বোনাস পাচ্ছেন বলে খবর বেরিয়েছে। কিন্তু এমপিও নীতিমালায় এই বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয় নি।

বোনান ও বৈশাখী ভাতা নিয়ে সংশোধিত নীতিমালার ১৩তম পৃষ্ঠায় ১১.৭(ঙ) নম্বর অনুচ্ছেদে যা বলা হয়েছে-

“শিক্ষক-কর্মচারীদের মূল বেতন/বোনাসের নির্ধারিত অংশ/উৎসব ভাতার নির্ধারিত অংশ/বৈশাখী ভাতার নির্ধারিত অংশ, সরকারের জাতীয় বেতন স্কোল-২০১৫/সরকারের সর্বশেষ জাতীয় বেতন স্কেলের সাথে অথবা সরকারের নির্দেশনার সাথে মিল রেখে করতে হবে।”

এখানে শতভাগ ঈদ বোনাস ও বৈশাখী ভাতা বৃদ্ধির কোন স্পষ্ট নির্দেশনা নেই। ‘নির্ধারিত অংশ’- বলতে যতদূর বোঝা যায় আগের মত নির্ধারিত অংশই বোঝাবে।

তবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় চাইলে আর অর্থ মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে, শিক্ষকদের ১০০ ভাগ ঈদ বোনাস দিতে নীতিমালা বাঁধা হয়ে দাঁড়াবে না।

সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ২০২১ (স্কুল-কলেজ) পিডিএফ (PDF)

প্রকাশিত এমপিও নীতিমালার পিডিএফ কপি সংগ্রহ করা যাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এর ওয়েবসাইট থেকে।

নিচের সংযুক্ত লিংক থেকে এমপিও নীতিমালার ৪৪ পৃষ্ঠার অরিজিনাল PDF সংগ্রহ করতে পারেন।

উপরের লিংক থেকে পিডিএফ ফাইল পড়তে অসুবিধা হলে, নিচের লিংক থেকে ইমেজ ফাইল সংগ্রহ করুন। যে কোন ডিভাইসে সহজে দেখা যাবে)।

আর স্কুল-কলেজ সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ২০২১ সম্পর্কে জানার থাকলে আমাদের লিখে জানান।

আরো জানুন: স্কুল-কলেজ এখনই খুলছে না, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলতে পারে ২৩ মে থেকে

তথ্যসূত্র:

শিক্ষা মন্ত্রনালয় এর মাধ্যমিক ও উচ্চ  শিক্ষা বিভাগ

সবশেষ আপডেট: ৩১/০৩/২০২১ খ্রিষ্টাব্দ তারিখ ০৬:২২ অপরাহ্ণ।

Share This:

36 Comments

  1. পদোন্নতির মুল্যায়ন পদ্ধতিটি অবশ্যই শিক্ষকদের জন্য গলার কাঁটা হয়ে দাড়াবে। এই পদ্ধতি ব্যবহার করে প্রতিষ্ঠান প্রধান কিংবা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সভাপতি শিক্ষকদের আজ্ঞাবাহ থাকতে বাধ্য করবে। অন্যথায় পদোন্নতি হবে না। এছাড়াও এখানে ঘুষ বানিজ্যেরও প্রতিযোগিতা চলবে। ডিজিটাল যুগে এটি এনালগ পদ্ধতিতে হাটার সমান। নিয়োগ বাণিজ্য বন্ধ করে আর একটা বাণিজ্যের সুযোগ দেয়া! বিষয় টি বিজ্ঞজনরা ভেবে দেখবেন।

  2. স্যার , কারও যদি এমপিও ভুক্তির আগেই অনুমোদিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএড ডিগ্রী থাকে, তাহলে এমপিও ভুক্তির সময় বিএড স্কেল পাওয়া যাবে কি?

    1. শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক অনুমোদিত বিশ্ববিদ্যালয়/প্রতিষ্ঠান থেকে বিএড করলে এমপিওভুক্তির সময় নির্ধারিত স্কেল পাওয়া যাবে। ধন্যবাদ।

  3. অামি সহকারী শিক্ষক হিসাবে ২০০১সালের এপ্রিলে এম,পি,ও ভুক্ত হই।২০০৫ সালে বি,এড স্কেল প্রাপ্ত হই।২০১৩ সালে টাইমস্কেল প্রাপ্ত হই।বর্তমান ৩য় ধাপে স্কেল ২৫৪৮০/-বেতন২৪৪৩২/-।বর্তমান অামি ৯মগ্রেড থেকে নিয়োগ পেয়ে ৮ম গ্রেডে উর্তীন্ন হয়েছি।হিসাব অনুযায়ী অামার বেতন হবে ২৬৬৩০/-কিন্তু অনেকেই বলছেন বেতন কম হবে।৮ম গ্রেডে ২৩০০০/-স্কেলে ২১৯০০/-টাকা হবে।অাসলে বিষয়টা কি হবে।জানা থাকলে জানালে ভাল হয়।

    1. নতুন এমপিও নীতিমালায় সমস্যাটা সমাধান করা হয়েছে। এখন কোন শিক্ষক-কর্মচারীর উচ্চতর স্কেল পেলে বেতন অবশ্যই বাড়বে, কোনভাবেই কমবে না। ধন্যবাদ।

  4. নতুন শিক্ষানীতিতে স্কুলে সহকারী শিক্ষক (ইসলাম শিক্ষা)যদি তিনি কামিল পাশ হন কিন্তু বিএড নাই তাহলে কত গ্রেডে বেতন পাবেন?

    1. সিনিয়র শিক্ষকের স্কেল পেতে অবশ্যই বিএড/সমমান সনদ প্রয়োজন হবে। আর আপনার বেতন কত হবে তা জানতে এমপিও নীতিমালা সংগ্রহ করে পড়ুন। ধন্যবাদ।

    1. এ বিষয়ে সংশোধিত এমপিও নীতিমালায় স্পষ্ট করে তেমন কিছু বলা হয়নি। আপনি এ বিষয়ে জানতে আপনার উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিুসার এর সাথে যোগাযোগ করে পরামর্শ নিতে পারেন। ধন্যবাদ।

  5. Sir.আমি সহকারি শিক্ষক কৃষি।জুন ২০০৪ সালে ১০ম গেডে বেতন ভাতা পাই। ২০১৩ সালের February মাসে ৯ ম grade পাই। বতমান বেতন ২৪৪৩২। এখন আমি কি ৮ম grade এ বেতন পাব কি না??? যদি পাই তবে বেতন আগের চেয়ে বাড়বে না কমবে?? দয়া করে জানাবেন…

    1. ১০ গ্রেডে বেতন প্রাপ্তির ১০ বছর পর সিনিয়র শিক্ষক হিসাবে ৯ম গ্রেডে বেতন পাবেন। তার ৬বছর পর তার আগের গ্রেডে বেতন পাবেন। এমনই নিয়ম জারি করা হয়েছে সংশোধিত স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালায়। বেতন কোনক্রমেই কমবে না। বিস্তারিত জানতে এমপিও নীতিমালা সংগ্রহ করে পড়ুন। ধন্যবাদ।

  6. আমি ২য় গণ বিজ্ঞপ্তিতে এনটিআরসিএর সুপারিশ প্রাপ্ত একজন কৃষি শিক্ষা বিষয় এর শিক্ষক।আমার বি,এড ডিগ্রী নেই।আমি জানতে চাই যে,৩য় গণবিজ্ঞপ্তিতে যদি আমি প্রতিষ্ঠান পরিবর্তন করতে চাই তাহলে কি আমার বেতন ১০ম স্কেল এ থাকবে নাকি ১১তম স্কেল হবে।যেহেতু এমপিও নীতিমালা ২০২১ এ আছে যে, বি,এড ডিগ্রি না থাকলে বেতন স্কেল ১১তম হবে।আমি জানতে চাই যে, ইনডেক্সধারিদের জন্য কি এই নীতিমালা শিথিলযোগ্য হবে কিনা?

  7. আমি ১ নভেম্বর ২০১৫ এম পি ও ভুক্ত হই।আমি ৩য় গনবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে স্কুল পরিবর্তন করলে বিগত বছরের অভিজ্ঞতা ও ইনক্রিমেন্ট গণনা করা হবে কি? অনুগ্রহ করে জানাবেন।

  8. আসসালামু আলাইকুম,
    ‘অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী’ পদে বিজ্ঞান বিভাগের কেউ আবেদন করতে পারবে কী?
    উত্তরটি জানালে খুবই উপকৃত হতাম।

    1. সংশোধিত এমপিও নীতিমালা অনুসারে, অফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী পদের যোগ্যতা হলো- ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে এইচএসসি পাস হতে হবে। এর সাথে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। আপনি বর্তমান এমপিও নীতিমালা সংগ্রহ করে পড়ুন। ধন্যবাদ।

  9. প্রভাষক যারা ৭ম গ্রেডে আছেন, তারা কিভাবে ৬ষ্ট গ্রেডে সহকারী অধ্যাপক পদ প্রাপ্ত হবেন বিষয়টি জানা থাকলে জানাবেন।

    1. চাকুরী ৮ বছর পূর্ণ হয়ে ৫০% কোটায় পড়লে বা ১৬ বছর চাকুরীকাল পূর্ণ হলে, প্রভাষকগণ সহকারী অধ্যাপক/জৈষ্ঠ প্রভাষক পদে পদোন্নতি পাবে। ধন্যবাদ।

    1. স্কুল-কলেজের সংশোধিত এমপিও নীতিমালায় গ্রন্থাগারিককে শিক্ষকের মর্যদা দেওয়া হয়েছে। । কর্তৃপক্ষ এবিষয়ে কোন নতুন নির্দেশনা জারির পর বোঝা যাবে। আপনি বিষয়টি নিয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। ধন্যবাদ।

    2. স্যার আমি ১/৯/২০২০ এ এমপিও ভুক্ত হই। আমি আমার বকেয়া বেতন এখন ও পাইনি।তাহলে ১লা জুলাই ২০২১ এ আমি কি ৫% ইনক্রিমেন্ট পাব?

    3. ১ জুলাই থেকে অটো ৫% ইনক্রিমেন্ট পেলে বিষয়টা পরিষ্কার হবে । বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত তথ্য পেতে আপনার উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অপিসার এর দপ্তরে যোগাযোগ করতে পারেন।

  10. প্রভাষক হিসেবে ৮ বছর পর ৫০% বা ১৬ বছর পর যেভাবে ৬ তম গ্রেড (৩৫,৫০০) পাবেন তার জন্য কখন এবং কিভাবে আবেদন করতে পারবেন?

    1. অনলাইনে নতুন এমপিও আবেদনের মতই পদোন্নতির আবেদন ইএমআইএস সেলে আবেদন করতে হবে। তবে কবে নাগাদ নতুন এমপিও নীতিমালা কার্যকর হবে তা এখনই বলা সম্ভব নয়। আপনি এই বিষয়ে আপনার এলাকার আঞ্চলিক উপ-পরিচালক দপ্তরে খোঁজ নিতে পারেন। ধন্যবাদ।

  11. স্যার ২০২১ সালের এম পি ও নীতিমালাতে ২০১৮সালের এম পি ও নীতিমালার ১১.১৩ উপধারা পরিবর্তন করায় ২০০০সালের ৮ আগষ্টের আগের নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষকদের উচ্চতর পদের নিয়োগ পাওয়ার কোন সু্যোগ নাথাকায় তাদের জন্য কালো আইনে রুপান্তরিত হয়েছে।পুর্বে কোনো এম পি ও নীতিমালাতে এর পরিবর্তন করেনি।স্যার ২০২১ সালের এম পি ও নীতিমালা থেকে ১১.২০উপধারা পরিবর্তন করে সংশোধন করলে২০০০সালের ৮ আগষ্টের আগের নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষকদের উপকার হতো। ১১.২০ ধারায় ২০০০সালের ৮ আগষ্টের আগেরএকের অধিক ৩য় বিভাগ নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষকরা উচ্চতর পদে নিয়োগ প্রাপ্ত হলে বেতন হবে কিনা? এবংস্যার ২০২১ সালের এম পি ও নীতিমালা থেকে ১১.২০উপধারা পরিবর্তন করে সংশোধন করলে । সঠিক উত্তর দিলে আমি খুশি হব।আপনাকে ধন্যবাদ।

    1. আমাদের জানা মতে, পূর্বের নিয়োগপ্রাপ্তদের জন্য তৎকালীন এমপিও নীতিমালা প্রযোজ্য হবে। এবিষয়ে বিস্তারিত জানতে এমপিও নীতিমালা পড়ুন অথবা উপজেলা শিক্ষা অফিসার এর সাথে যোগাযোগ করুন। ধন্যবাদ।

  12. ২০১৬ সালে জানুয়ারী মাসে আমার একজন সহকর্মী ও আমি এমপিও ভুক্ত হই। আমাদের বেতন স্কেল ১২,৫০০ টাকা। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অনুমতিক্রমে আমার সহকর্মী ২০১৮ সালে ও আমি ২০১৯ সালে বিএড সম্পন্ন করি। ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে ১২,৫০০ টাকা স্কেলে ২টি ইনক্রিমেন্ট পাওয়া পর আমাদের বেতন ১৩,৯১১ টাকা । আমার সহকর্মী বিএড স্কেলে আবেদন করা পর সেপ্টেম্বর মাসে তার বেতন আসে ১৭,৩৭৬ টাকা। ৩য় ইনক্রিমেন্ট পাওয়ার পর তার বেতন ১৮,১৭৭ টাকা ও আমার বেতন পাই ১৪,৫৩২ টাকা। ২০২০ সালে ডিসেম্বর মাসে বিএড স্কেলের জন্য আবেদন করা পর ২০২১ সালে জানুয়ারী মাসে ১৬,০০০ টাকা স্কেলে আমার বেতন আসে ১৫,৯০০ টাকা । অথচ একই পরিপত্রে আমার সহকর্মী ৫টি ইনক্রিমেন্ট পেয়ে তিনি বেতন পান ১৮,১৭৭ টাকা। একই নীতিমালায় দুই ধরণের নিয়ম কিভাবে হয়? অথচ সরকার এ পর্যন্ত ইনক্রিমেন্ট দিয়েছেন ৩টি। প্রশ্নঃ আমার সহকর্মী যদি ১৩,৯১১ টাকা থেকে ১৭,৩৭৬ টাকা বেতন পান তাহলে আমি কেন একই নিয়মে ১৪,৫৩২ টাকা থেকে ১৮,১৭৭ টাকা বেতন পেলাম না? দয়া করে উত্তর দেবেন।

    1. বিষয়টি সম্পূর্ণ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের এখতিয়ারে। এমনই বেতন বৈষম্যের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে আপনি আপনার উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এর সাথে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন। ধন্যবাদ।

  13. স্যার আমি ১৬/০৮/২০১৫ তারিখে সহকারি শিক্ষক পদে যোগদান করি এবং ০১/০৭/২০১৬ তারিখে এম.পি.ও ভুক্তি হই।সরকারি টি টি কলেজ থেকে২০১৯শিক্ষাবর্ষে ভর্তিহয়ে ০৭/১০/২০২০ তারিখে ফলাফল প্রকাশের মাধ্যমে সি জি পি এ-৩.২০ পেয়ে বিএড ডিগ্রী অর্জন করি এখন আমি এম পি ও নীতিমালা -২০২১ এর আলোকে বিএড স্কেল ১০ম গ্রেডে বেতন প্রাপ্য হব কি না?

    1. উৎপাদন ব্যাবস্থাপনা ও বিপনন পদের জন্য সংশ্লিষ্ট বিষয়ের এনটিআরসিএ সনদ প্রয়োজন হবে। তবে সংশোধিত এমপিও নীতিমালায় পদটির যোগ্যতার বিকল্প হিসাবে ‘ম্যানেজমেন্ট বিষয়সহ মার্কেটিং’ অপশনটি আছে। আপনি এই আমরা নিশ্চিত নই। ধন্যবাদ।

  14. প্রভাষকগন প্রভাষক হিসেবে ৮ বছর পর ৫০% বা ১৬ বছর পর যেভাবে ৬ তম গ্রেড (৩৫,৫০০) পাবেন, গ্রন্থাগার প্রভাষকগণ সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন কি ? ধন্যবাদ।

    1. আর্থিক সুবিধা পূর্বের ন্যায় বহান থাকবে বলে এমপিও নীতিমালায় বলা হয়েছে। আপনার প্রশ্নের বিষয়ে এখনো নিশ্চিত কোন তথ্য প্রকাশ করেনি কর্তৃপক্ষ। তবে কিছুদিনের মধ্যে গ্রন্থাগার প্রভাষক এর নিয়োগ ও বেতন-ভাকা বিষয়ে নতুন সিদ্ধান্ত আসতে পারে। ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।