মাদ্রাসা ও কারিগরি এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত) ২০২০ প্রকাশ

মাদ্রাসা ও কারিগরি এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত) ২০২০

মাদ্রাসা ও কারিগরি সংশোধিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ২০২০ প্রকাশ করা হয়েছে। ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দের নীতিমালার কিছু বিষয়ে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

স্কুল-কলেজের সংশোধিত এমপিও নীতিমালা প্রকাশের অপেক্ষায় আছে। যে কোন সময় তা প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

নতুন প্রতিষ্ঠান এর এমপিওকরণ ও নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের এমপিওভুক্তির লক্ষ্যে, ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো প্রকাশ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এমপিও নীতিমালার কিছু বিষয়ে অসঙ্গতি ও শিক্ষক সমাজের দাবীর মুখে মন্ত্রণালয় তা সংশোধনের উদ্যোগ গ্রহণ করে। ধারাবাহিকভাবে বেশ কয়েকটি সভার এ বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ সভায় অংশগ্রহণ করেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী, শিক্ষা সচিবালয়ের কর্মকর্তাসহ শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধি।

সবশেষ ২৩ নভেম্বর মন্ত্রণালয় এর কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগ, সংশোধিত নীতিমালা ও জনবল কাঠামো ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে।

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে নতুন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করার সময়ে, নীতিমালার কিছু বিষয়ে অস্পষ্টতা ও অসঙ্গতি ধরা পড়ে। তাই এই সংশোধনের প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হয়।

সংশোধিত বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদ্রাসা ও কারিগরি) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা ২০২০

২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে ঘোষিত এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোর কিছু বিষয়ের সংশোধন করা হয়েছে। নতুন নীতিমালায় সহকারী অধ্যাপক পদের সংখ্যার অনুপাত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

মাদ্রাসার  মোট প্রভাষক সংখ্যার অর্ধেক এখন সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি পাবেন। আগে যেখানে এক তৃতীয়াংশ প্রভাষক উক্ত পদে পদোন্নতি পেতেন।

আরো একটি বিষয়ে লক্ষ্যনীয় পরিবর্তন হয়েছে, আলিম মাদ্রাসা ও কারিগরি উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের বিএম কলেজের ক্ষেত্রে নতুন পদ সৃষ্টি করা হয়েছে।

এখানে জ্যেষ্ঠ প্রভাষক নামে নতুন পদের নামকরণ করা হয়েছে। উভয় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে, আগের সহকারী অধ্যাপক পদ বিলুপ্ত করা হয়েছে।

সংশোধিত মাদ্রাসা এমপিও নীতিমালা ২০২০ এর আলিম মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের প্যাটার্ন দেখুন। (বিস্তারিত নীতিমালার লিংক দেখুন সবশেষ অনুচ্ছেদে)।
মাদ্রাসা এমপিও নীতিমালা ২০২০ এর জ্যেষ্ঠ প্রভাষক পদ

নতুন পদ সৃষ্টির বিষয়ে আগে থেকে তেমন কোন আলোচনা শোনা যায় নি। শিক্ষক সমাজ ও মন্ত্রণালয় এর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আলোচনা ছিলো না।

৮ বছর পর পদোন্নতি প্রাপ্ত জৈষ্ঠ প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপকের গ্রেডেই বেতন-ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

সহকারী অধ্যাপক ও জ্যেষ্ঠ প্রভাষক ০৬ গ্রেডে বেতন পাবেন।

ফাজিল ও কামিল মাদ্রাসায় সহকারী অধ্যাপক পদ থাকলেও কারিগরিতে আর পদটি থাকছে না।

এক্ষেত্রেও জ্যেষ্ঠ প্রভাষকের বেতন-ভাতা সহকারী অধ্যাপকের সমানই থাকছে।

তবে কারিগরি ও আলিম মাদ্রাসায় সহকারী অধ্যাপক পদ না থাকায়, সংশ্লিষ্ট শিক্ষকরা চরম অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

কোন আলোচনা না করে পদটি বিলুপ্ত করায় তারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

কারিগরি এমপিও ও জনবল কাঠামো ২০২০ দেখুন এখান থেকে

মাদ্রসা এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামো দেখতে এখানে ক্লিক করুন

6 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।