Ntrca সর্বশেষ খবর: এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট ২০২৩

Ntrca সর্বশেষ আপডেট খবর: এনটিআরসিএ ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ।

১২ মার্চ ২০২৩ খ্রি. তারিখের রাতে শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়। এসএমএস-এর মাধ্যমে সুপারিশ প্রাপ্ত শিক্ষকদের জানানো হয়েছে। তবে কেই মেসেজ না পেলে অনলাইনে নিয়োগ রেজাল্ট দেখতে বলেছে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষ।

এবারে ৬৮ হাজার ৩৯০ পদে শিক্ষক নিয়োগের কথা থাকলেও, নিয়োগ সুপারিশ করা হয়েছে ৩২ হাজারের কিছু বেশী প্রার্থীকে।

Ntrca সর্বশেষ খবর ২০২৩: এনটিআরসিএ ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট প্রকাশ

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যায়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ), শিক্ষক নিয়োগের ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তি রেজাল্ট প্রকাশ করেছে।

১২ মার্চ ২০২৩ খ্রি. তারিখ রবিবার রাতে, শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে বলে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৬৮,৩৯০ এমপিও পদে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ ছিলো। কিন্তু নিয়োগ সুপারিশ করা হয়েছে ৩২ হাজার ৪৩৮ প্রার্থীকে। এসব পদে প্রায় ১ লাখেরও বেশী নিবন্ধনকারী, শিক্ষক পদে আবেদন করেছিলেন।

২১ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রি. তারিখে এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষের দাপ্তরিক ওয়েবসাইটে শিক্ষক নিয়োগের চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি  প্রকাশ করা হয়।

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে অনলাইনে শিক্ষক নিয়োগ আবেদন শুরু হয় ২৯ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রি. তারিখ থেকে। আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ খ্রি. তারিখ পর্যন্ত।

একজন আবেদনকারী ১০০০/= টাকা ফি পরিশোধ করে সর্বোচ্চ ৪০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চয়েস দিতে পেরেছেন। এরপরেও কোন প্রার্থী চয়েজ বহির্ভুত প্রতিষ্ঠানে চাকুরীর জন্য আবেদন করতে পেরেছেন।

গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট দেখার ঠিকানা: www.ntrca.gov.bd

আরো জানুন:

Latest NTRCA Notice: সদ্য প্রকাশিত এনটিআরসিএ নোটিশ দেখুন

NTRCA Latest Result (ntrca.teletalk.com.bd) এনটিআরসিএ রেজাল্ট

এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট দেখার নিয়ম

৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের তালিকা রেজাল্ট প্রকাশের পর হতে, অনলাইনে এনটিআরসিএ ওয়েবসাইট থেকে দেখা যাচ্ছে।

এছাড়া নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মোবাইল এসএমএস-এর মাধ্যমে নিয়োগ রেজাল্ট জানানো হয়েছে। কোন কারণে মেসেজ না পেলে নিচের ঠিকানায় গিয়ে প্রার্থীর আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করে নিজ নিজ নিয়োগ রেজাল্ট দেখা যাবে।

চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তিতে নির্বাচিত প্রার্থীদের পুলিশ ভেরিফিকেশন

নিয়োগ সুপারিশ প্রাপ্ত শিক্ষকদের পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম অনলাইনে পূরণ করে তা অনলাইনেই সাবমিট করতে হবে। এ বিষয়ে পরবর্তীতে নির্দেশনা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এনটিআরসিএ কর্তৃপক্ষের ওয়েবসাইটে পরবর্তীতে এ বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হবে।

২০২৩ সালের এনটিআরসিএ ৪র্থ গণবিজ্ঞপ্তির শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকলে আমাদের লিখে জানান।

তথ্যটি সবাইকে জানাতে সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করুন।

আরো দেখুন:

মাদ্রাসা ও কারিগরি এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত)

এমপিও নীতিমালা ২০২১: স্কুল-কলেজ এমপিও নীতিমালা (সংশোধিত)

তথ্যসূত্র:

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ

“Ntrca সর্বশেষ খবর: এনটিআরসিএ শিক্ষক নিয়োগ রেজাল্ট ২০২৩”-এ 12-টি মন্তব্য

  1. I Think That Panel Vittik Niog is better instead of 4Th Gono Biggopti

    জবাব
    • মতামতের জন্য ধন্যবাদ।

  2. কবে নাগাদ ৪র্থ শিক্ষক নিয়োগ প্রকাশ করা হবে?

    জবাব
    • বিজ্ঞপ্তি শীঘ্রই প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

  3. বি এম কলেজ কারিগরি কলেজ এর অন্তর্ভুক্ত নাকি সাধারণ কলেজ এর অন্তর্ভুক্ত। ব্যাবস্থাপনা বিষয়ে আবেদন করতে হলে সাধারণ কলেজ এর আবেদন করলেই হবে নাকি আলাদা করতে হবে। জনালে খুশি হব।

    জবাব
    • এগুলো কারিগরি বোর্ডের অধীনে পরিচালিত হয়।

  4. যারা ২০১৮ সালের আগে নিবন্ধন পাশ করেছে তাদের সবারই তো বয়স ৩৫ পার হয়েছে, এটা নিয়ে গতবার বয়সসীমার যে শিথিলতার নির্দেশ ছিল এবার সেটা নেই কেন। হাজার হাজার প্রার্থী তো বয়সসীমার জন্য আবেদনই করতে পারবে না। যতগুলো শুন্য পদ আছে সেগুলো তো পুর্নই হবে না।

    জবাব
  5. এ নিয়োগ প্রকৃয়া দীর্ঘ। এর পর দুই ধাপে পাশ করার পর আবার আবেদন। প্রত্যেক ধাপে অনেক খরচ। অবশেষে অর্ধেকের চাকুরি হয়, অর্ধেকের হয় না। এটা প্রহসন ছাড়া অন্যকিছু না।
    শূণ্য আসনের বিপরীতে সরাসরি নিয়োগ পরীক্ষা নিয়ে নিয়োগের ব্যবস্থা করা হোক।
    সময় ও অর্থ দুটোই বাঁচবে।

    জবাব
  6. বিশেষে যারা যোগদান করছে,তাদের ইন্ডেক্স হলে চতুর্থতে চুড়ান্ত সুপারিশ করেব।জানতে পারলে ভালো হতো

    জবাব
  7. ৬৮৩৯০ শুন্য পদের নিপরীদে ৪র্থ গণ বিজ্ঞপ্তির ৩২৪৩৮ প্রার্থীকে সুপারিশ করা হয়েছে।পরবর্তীতে আবার সুপারিশ করা হবে কি।

    জবাব
    • এসব পদে প্রার্থী পাওয়া যায়নি। আবারও গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পদ পূরণ করা হবে।

মন্তব্য করুন