একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম (ফি ও অনলাইন আবেদন)

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম জানুন। ভর্তি আবেদনের ফি প্রদান ও xiclassadmission.gov.bd সাইটে অনলাইন আবেদন করার নিয়ম দেখুন।

অনলাইনে কলেজ-মাদ্রাসার একাদশ শ্রেণির ভর্তি আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে ১০ আগস্ট থেকে। আবেদন করা যাবে ২০ আগস্ট ২০২৩ খ্রি. তারিখ পর্যন্ত। আবেদন ফি ১৫০/= টাকা।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম (ফি প্রদান ও অনলাইন আবেদন পদ্ধতি)

২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির ১ম ধাপের ভর্তির অনলাইন আবেদন শুরু হয়েছে ১০ আগস্ট থেকে। আবেদন গ্রহণ চলবে ২০ আগস্ট তারিখ পর্যন্ত।

এর পরেও আরো তিন ধাপে একাদশের ভর্তি আবেদন গ্রহণ করা হবে। প্রথম ধাপের ভর্তি রেজাল্ট ৫ সেপ্টেম্বর প্রকাশ করা হবে।

আবেদন ফি বাবদ ১৫০/= টাকা পরিশোধ করে অনলাইনে একাদশের ভর্তি আবেদন করা যাবে। সর্বনিম্ন ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই ফি দিয়ে আবেদন করা যাবে।

টেলিটক সিম যুক্ত মোবাইল ফোনের মেসেজ দিয়ে বা বিকাশ, শিওর ক্যাশ ও নগদ এর মাধ্যমে আবেদন ফি-এর টাকা জমা দেওয়া যাবে।

প্রথমে ভর্তি আবেদনের টাকা পরিশোধ করে, পরবর্তীতে অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে। কোন ক্রমেই আবেদনের টাকা পরিশোধ না করে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন না।

নিচের অনুচ্ছেদে টেলিটক মেসেজ  ও বিকাশের মাধ্যমে ভর্তি আবেদন ফি পরিশোধ ও অনলাইনে আবেদন করার পদ্ধতি বর্ণনা করা হয়েছে।

আরো জানুন:

একাদশ শ্রেণির ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৩: অনলাইন আবেদন ১০-২০ আগস্ট

একাদশ শ্রেণিতে কলেজ ভর্তি ফি ২০২৩ (সরকারি, এমপিও, নন-এমপিও)

২০২৩ সালের একাদশে ভর্তি নিশ্চয়ন ও বোর্ড রেজিস্ট্রেশন যাচাই পদ্ধতি

একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন ফি পরিশোধের পদ্ধতি (টেলিটক)

টেলিটক এর মাধ্যমে অনলাইনের একাদশ শ্রেণির ভর্তি ফি প্রদানের নিয়ম-

প্রথমে টেলিটকের প্রিপেইড মোবাইলের Message অপশনে যান।

মেসেজ অপশনে লিখুন : CAD<space>WEB <space> এসএসসি সমমান পরীক্ষা পাসের বোর্ড এর নামের প্রথম তিন অক্ষর<space>এসএসসি সমমান পরীক্ষা পাসের রোল নাম্বার<space>এসএসসি সমমান পরীক্ষা পাসের বছর।

উদাহরণস্বরূপ : CAD WEB DHA 123456 2023 sent to 16222 এবং পাঠিয়ে দিন 16222 নাম্বারে।

উপরের উদাহরণে ঢাকা বোর্ডের কল্পিত একজন শিক্ষার্থীর মেসেজ ফরম্যাট দেখানো হয়েছে। আপনার ক্ষেত্র বোর্ডের নামের তিন অক্ষর ও রোল নাম্বার ভিন্ন হবে।

এরপর ফিরতি এসএমএস এ আবেদনকারীর নাম এবং আবেদন ফি বাবদ ১৫০ টাকা কেটে নেয়া হবে, তা জানিয়ে একটি পিন কোড প্রদান করা হবে।

তারপর আবার মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন CAD<space>YES<space>PIN<space>CONTACT NUMBER এবং পাঠিয়ে দিন 16222 নাম্বারে।

এই CONTACT NUMBER টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এখানে আপনার সচল মোবাইল ফোনের নাম্বার দিন।

ফি সঠিকভাবে জমা হলে প্রার্থীর মোবাইলে নিশ্চিতকরণের একটি Transaction ID সহ SMS যাবে।

মোবাইলের ফিরতি মেসেজগুলো সংরক্ষণ করুন। কারণ এই সব মেসেজ পরবর্তীতে অনলাইনে আবেদন করতে প্রয়োজন হবে।

যদি বিকাশের মাধ্যমে একাদশের ভর্তি ফি দিতে চান তাহলে নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

বিকাশ এর মাধ্যমে একাদশের ভর্তির আবেদন ফি জমা দেওয়ার পদ্ধতি

একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন ফি বিকাশ-এর মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে। বিকাশ অ্যাপে ভর্তির আবেদন ফি পরিশোধ করতে বিকাশ অ্যাপ চালু করুন।

এরপর নিচের ছবিতে দেখানো পদক্ষেপ গ্রহণ করুন।

একাদশ শ্রেণির ভর্তির অনলাইন আবেদন ফি পরিশোধের নিয়ম

প্রথমে বিকাল অ্যাপের পে-বিল অপশনে যান, এরপর XI Class Admission লেখা অপশনটি খুঁজে বের করুন।

এরপর নিচের ছবির নির্দেশনা মত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর সকল তথ্য নির্বাচন করুন। এখানে শিক্ষার্থীর নিজের বা বাবার সচল মোবাইল নাম্বার দিন।

এরপর পে করতে এগিয়ে যান লিখা লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী পাতায় যেতে হবে। এখানে শিক্ষার্থীর  যে সব তথ্য আগের পাতায় দেওয়া হয়েছে সেসব তথ্য দেখা যাবে। কোন তথ্য ভুল হলে পিছনের পাতায় গিয়ে সঠিক করতে হবে।

আর সকল তথ্য দেখে সঠিক মনে হলে, পরের ধাপে গিয়ে বিকাশ অ্যাকাউন্টের পিন কোড দিয়ে সেন্ড করুন।

ফিরতি মেসেজে ভর্তি আবেদনের ফি পরিশোধের তথ্য দেখা যাবে। এইসব তথ্যের মেসেজ সংরক্ষণ করুন।

উপরোক্ত পদ্ধতি গুলোর মধ্যে যে কোন পদ্ধতিতে ভর্তির ফি পরিশোধের পর অনলাইনে আবেদন করতে হবে। নিচের অনুচ্ছেদে আবেদনের পদ্ধতি সম্পর্কে জানুন।

এইচএসসি আলিম একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম

বিকাশ/নগদ/রকেট/সোনালী ব্যাংক/উপায়/ট্যাপ/ওকে ওয়ালেট এর (নেট) আবেদন ফি ১৫০/- (একশত পঞ্চাশ টাকা) জমা দেওয়ার পর আবেদনকারীকে নিচের ওয়েবসাইটে আবেদন করতে হবে।

অনলাইনে একাদশের ভর্তি আবেদনের ঠিকানা: www.xiclassadmission.gov.bd

উপরের ঠিকানা ব্রাউজ করে ভর্তি আবেদন গ্রহণের ওয়েবসাইটে যান। এরপর “Apply Online” Button এ ক্লিক করতে করুন।

এরপর প্রদর্শিত তথ্য ছকে এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পাসের সন ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর সঠিকভাবে এন্ট্রি দিন।

ভর্তির আবেদন ফরমে দেয়া তথ্য সঠিক হলে, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী তার ব্যক্তিগত তথ্য ও এসএসসি সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত GPA দেখতে পাবে।

এরপর শিক্ষার্থীর Contact Number (ফি প্রদানের সময় প্রদত্ত মোবাইল নম্বর) এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে কোটার তথ্য দিতে দিতে হবে।

পরবর্তী ধাপে কাঙ্ক্ষিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রুপ, শিফট এবং ভার্সন Select করতে হবে। এভাবে শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ১০টি ও সর্বনিম্ন ৫টি কলেজ/মাদ্রাসা Select করতে পারবেন।

একই প্রতিষ্ঠানের একাধিক শিফট/ভার্সন/গ্রুপে আবেদন করা যাবে। এই ফরমে আবেদনকারী তাঁর সকল আবেদনের পছন্দক্রমও নির্ধারণ করতে পারবেন।

এখানে আবেদনকারী “Preview Application” Button এ ক্লিক করলে তার আবেদনকৃত কলেজসমূহের তথ্য ও পছন্দক্রম দেখতে পারবেন।

Preview-এ দেখানো তথ্যসমূহ সঠিক থাকলে, Submit” Button এ ক্লিক করুন।

আবেদনটি সফলভাবে Submit করা হলে আবেদনকারী তাঁর প্রদত্ত Contact Number-এর মোবাইলে একটি নিশ্চিতকরণ SMS পাবেন এবং যাতে একটি সিকিউরিটি কোড (Security Code) থাকবে।

এই Security Code টি গোপনীয়তা ও সতর্কতার সাথে সংরক্ষণ করতে হবে, যা পরবর্তীতে আবেদন সংশোধন ও ভর্তি সংক্রান্ত কাজে ব্যবহার করতে হবে।

ভর্তিচ্ছু আবেদনকারী শিক্ষার্থী চাইলে তাঁর আবেদন সমূহের তথ্যাদি সহ উক্ত ফরমটি Download করে প্রিন্ট (Print) নিতে পারবেন।

উল্লেখ্য, একজন আবেদনকারী সর্বোচ্চ ৫(পাঁচ) বার ইন্টারনেটে ঢুকে কলেজের পছন্দক্রম এবং কলেজ পরিবর্তন করতে পারবেন।

একাদশ শ্রেণিতে অনলাইন ভর্তি আবেদনে সমস্যা হলে করণীয়

উপরের অনুচ্ছেদের নির্দেশনা অনুযায়ী এসএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ড, পাসের সন ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর সঠিকভাবে এন্ট্রি দেওয়ার পরও শিক্ষার্থীর ব্যক্তিগত তথ্য ও এসএসসি পরীক্ষার GPA দেখতে না পেলে করনীয়-

আবেদনকারীকে আবেদন ফি ১৫০/=জমা দেয়ার Transaction ID টি এন্ট্রি দিতে হবে এবং ফি প্রদানের জন্য তিনি যেই অপারেটর ব্যবহার করেছে তাকে Select করতে হবে।

পরবর্তীতে ৩০ মিনিট পর ইন্টারনেটে আবেদন করার জন্য, উপরের অনুচ্ছেদে উল্লেখিত অনলাইন আবেদন পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কোটায় একাদশের ভর্তি আবেদনের নিয়ম

শিক্ষা মন্ত্রনালয় ও এর অধীনস্থ দপ্তর/সংস্থায় কর্মরত কর্মকর্তা/কর্মচারীদের সন্তানদের ক্ষেত্রে মহানগর, বিভাগীয় ও জেলা সদরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য ন্যূনতম যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষে ২% শিক্ষা কোটা (EQ) সংরক্ষিত থাকবে।

এই কোটার আওতায় ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীকে কাঙ্ক্ষিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রুপ, শিফট এবং ভার্সন Select করার সময় EQ কোটা select করতে হবে।

আবেদনকারী সংখ্যা বেশি হয় সেক্ষেত্রে তাদের নিজেদের মধ্যে মেধার ভিত্তিতে ভর্তির সুযোগ পাবে। উপর্যুক্ত কোটায় যদি প্রার্থী না পাওয়া যায় তবে এ আসন কার্যকরী থাকবে না।

ভর্তির সময় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারী দপ্তর প্রধানের প্রত্যয়নপত্র দাখিল করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা নিজস্ব দপ্তরের প্রধান হলে সেক্ষেত্রে তাঁর একধাপ উপরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রত্যয়নপত্র দাখিল করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারী যে মহানগর/বিভাগ/জেলায় কর্মরত থাকবেন তার সন্তান সে মহানগর / বিভাগ/জেলায় ভর্তির জন্য বিবেচিত হবেন।

পরবর্তীতে কলেজ/মাদ্রাসা কর্তৃক যাচাইকরণ হবে বিধায় কোটার অপশন (Option) দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

মুক্তিযোদ্ধা কোটায় একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম

মুক্তিযোদ্ধার সন্তান/সন্তানের সন্তানদের জন্য কোটায় (FQ) ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থী তথ্য-ছকের নির্দিষ্ট স্থানে FQ কোটা Select করতে হবে।

যদি আবেদনকারী সংখ্যা বেশি হয় সেক্ষেত্রে তাদের নিজেদের মধ্যে মেধার ভিত্তিতে ভর্তির সুযোগ পাবে। উপর্যুক্ত কোটায় যদি প্রার্থী না পাওয়া যায় তবে এ আসন কার্যকরী থাকবে না।

এই কোটায় আবেদনের ক্ষেত্রে যথাযথ কর্তৃপক্ষের ইস্যুকৃত মূল সনদ পত্র থাকতে হবে এবং পরবর্তীতে কলেজ/মাদ্রাসা কর্তৃক যাচাইকরণ হবে।

তাই মুক্তিযোদ্ধা কোটার অপশন (Option) দেওয়ার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

একাদশ শ্রেণিতে বিশেষ কোটায় ভর্তি আবেদন করার নিয়ম

যে সকল প্রতিষ্ঠানে বিশেষ কোটা (SQ) অনুমোদিত আছে- সে সকল প্রতিষ্ঠানের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের সন্তানগণ এই বিশেষ কোটার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

এই কোটার আওতায় ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীকে কাঙ্ক্ষিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, গ্রুপ, শিফট এবং ভার্সন Select করার সময় SQ কোটা select করতে হবে।

উল্লেখ্য যে, আবেদন চলাকালীন নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কলেজসমূহ ইন্টারনেটে বিশেষ কোটা আবেদনকারীদের আবেদন নিশ্চিত করতে হবে।

২০২৩ সালের একাদশ শ্রেণিতে অনলাইনে ভর্তির আবেদন ও ফি প্রদান করতে কোন সমস্যা হলে আমাদের লিখুন।

তথ্যটি সবাইকে জানাতে সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করুন।

আরো দেখুন:

HSC XI Class Online Admission 2023: একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদন ও রেজাল্ট প্রকাশের তারিখ ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি রেজাল্ট দেখার নিয়ম (১ম মেধাতালিকা ফলাফল)

তথ্যসূত্র-

xiclassadmission.gov.bd

“একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন করার নিয়ম (ফি ও অনলাইন আবেদন)”-এ 3-টি মন্তব্য

  1. আমি অনলাইনে আবেদন করতে চাই

    জবাব
  2. আমি HSC Admission fee payment করতে পারছি না কারন যে কেউ payment করে দিয়েছে যে কোন মোবাইল নম্বর দিয়ে তাই আবেদন করতে পারছিনা please উপায় জানতে চাই.

    জবাব
    • আপনি ভর্তি ওয়েবসাইটের হেল্প নম্বরে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন।

মন্তব্য করুন