ষান্মাসিক মূল্যায়ন সিলেবাস ২০২৪ (৬ষ্ঠ-৯ম শ্রেণি)

মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ষান্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন  সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে। একইসঙ্গে মূল্যায়ন সংক্রান্ত নতুন নির্দেশনা দিয়েছে অধিদপ্তর। ৯ জুন ২০২৪ খ্রি. তারিখে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে মূল্যায়ণের সিলেবাস ও নির্দেশনা প্রকাশ করা হয়েছে।

২০২৪ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিকের ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির ষান্মাসিক মূল্যায়ন সিলেবাস

মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির ষান্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়ন শুরু হবে ৩ জুলাই থেকে। আর এই মূল্যায়ণের সিলেবাস ও কিছু নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর।

৯ মে ২০২৪ খ্রি. তারিখে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে, মূল্যায়ণের সিলেবাস প্রকাশের তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। মূল্যায়নের এই সিলেবাস প্রণয়ন করেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এনসিটিবি থেকে পাঠানো চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে ২০২৪ শিক্ষাবর্ষের মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির বিষয়ভিত্তিক ষাণ্মাসিক সামষ্টিক মূল্যায়নের সিলেবাস ও এ সংক্রান্ত নির্দেশনা মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হলো। বিষয়টি জরুরি বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

মাধ্যমিক স্কুলের ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির ষান্মাসিক মূল্যায়ন সিলেবাসের পিডিএফ কপির ইমেজ ভার্সন দেখুন।

৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণির ষান্মাসিক মূল্যায়ন নির্দেশনা

মূল্যায়ণের সিলেবাস প্রকাশের নির্দেশনা বলা হয়েছে, আগামী ১২, জুন ২০২৪ পর্যন্ত শ্রেণি কার্যক্রম চলাকালীন প্রকাশিত সিলেবাসের বিষযগুলো শেষ করতে বলা হয়েছে। এছাড়া বিকল্প উপায়ের কথা বলা হয়েছে।

বিকল্প উপায়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সময়ে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন করার দিকনির্দেশনা

  • বন্ধের পূর্বেই শিক্ষার্থীকে বন্ধে করনীয় অভিজ্ঞতাটির ধাপগুলো কী কী তা সহজ ভাষায় বুঝিয়ে দিন।
  • শিক্ষার্থীর বিকল্প কোন কোন কাজ পর্যবেক্ষণ করে তার পারদর্শিতা যাচাই করবেন তা জানিয়ে দিন।
  • কোথাও দলগত কাজ, পর্যবেক্ষণ, তথ্য সংগ্রহ ইত্যাদি কাজ থাকলে তা বিকল্প উপায়ে উদাহরণস্বরূপ, দলগত কাজের বদলে একক কাজ, পরিবারের সদস্যদের থেকে তথ্য সংগ্রহ, পর্যবেক্ষণের কাজটি বাড়ির আশেপাশের
    পরিবেশ থেকে বা ভিডিও দেখে বা ডকুমেন্ট পড়ে সম্পন্ন করা যেতে পারে) কাজটি সম্পন্ন করার কৌশল বলে দিন।
  • কাজ শেষে সক্রিয় পরীক্ষণের বদলে শিক্ষার্থী কী অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিবে তার ধারণা এবং জমা দেবার সময় নির্ধারণ করে দিন।
  • প্রয়োজনে অনলাইন ক্লাস করে, অভিভাবকদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম গুপে, মোবাইল গ্রুপে নির্দেশনা প্রদান করে শিক্ষার্থীদের বাড়িতে বসে কাজ পর্যবেক্ষণ করুন এবং ফিডব্যাক প্রদান করুন।

আরো দেখুন:

৬ষ্ঠ-৯ম শ্রেণির ষান্মাসিক মূল্যায়ন রুটিন ২০২৪ (সংশোধিত)

তথ্যসূত্র-

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর

মন্তব্য করুন